Responsive image

প্রকাশিতঃ সোমবার, ১৯ জুলাই ২০২১, ০৪:১৫ অপরাহ্ন

প্রিন্ট করুন

আজ তার চলে যাবার দিন…….


Responsive image

বাসন্তি সাহা।।
প্রতি পূর্নিমার মধ্যরাতে একবার
আকাশের দিকে তাকাই।
গৃহত্যাগী হবার মত জোছনা কি উঠেছে?
জোছনা কদমফুল আর বৃষ্টি এগুলোতো আগেও ছিলো । কেউতো এমন করে বলেনি আগে! কেউ তো এমন করে ভালোবাসতে বলেনি আগে! পুরো একটা প্রজন্মকে বই পড়তে শেখালো কে?? তিনি হুমায়ুন আহমেদ। সমাজের নিম্নবর্গের মানুষটাকেও যে পাগলের মতো ভালোবাসা যায়, তারও যে হাসি-কান্নার একটা জীবন আছে, মধ্যবিত্তদের জীবনের প্রতিদিনের টানাপোড়েন নিয়ে লিখেও যে পাঠককে বুঁদ করে রাখা যায়। তাতো তিনিই দেখিয়েছেন।
প্রায় বিশবছর আগে কে ভাবতে পেরেছিলো এই দেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে!!! রাজাকার যে কতটা ঘৃণার তা প্রথম কে বলেছিলো! জলিল সাহেবে পিটিশন ছোটগল্পে–জলিল সাহেব ভেবেছিলেন এই দেশে ঠিক একদিন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে। তাই তিনি বিচারের দাবিতে গণ স্বাক্ষর সংগ্রহ শুরু করেছিলেন—-
‘এইসব দিনরাত্রি’ অয়োময়’ ‘ বহুব্রীহি -বাংলা নাটককে দাঁড় করিয়ে দিলেন। দেখালেন রুচিশীল বিনোদন কেমন হতে পারে! ‘আগুণের পরশমনি’ আর শ্রাবণ মেঘের দিন’’ বানিয়ে মুক্তিযুদ্ধকে নতুন প্রজন্মের হাতে তুলে দিলেন। কোনটা রেখে কোনটা বলবো!
প্রতিদিনের জীবনে মেঘ-বৃষ্টি-রোদে ‘নবনী’ এখনও আমার সাথে থাকে রক্ত মাংশের মানুষ হয়ে।
আজ তাঁর চলে যাবার দিন। শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা এই মহান মানুষটির প্রতি।
লেখক: কর্মসূচী পরিচালক, দর্পণ।

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মোঃ মাহবুব মোর্শেদ

বাড়ী নং ১০০, বায়তুল আমান, (৫ম তলা), বড় মসজিদের বিপরীত পাশে, বাগিচাগাঁও, কুমিল্লা।
০১৭১৫-৭০৭১২৪,০১৮১৮-১০৩২২৫
newscomilladarpan@gmail.com
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত