বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি নিরাময় ও ঝরে পড়া রোধকল্পে মুরাদনগরে এমপি’র মতবিনিময় সভা নবজাতক কন্যাকে আর কোলে নেয়া হলো না আতিক মুন্সীর! মুরাদনগরে মানসিক প্রতিবন্ধী নাছির হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার কুমিল্লায় বাংলাদেশ কৃষকলীগের আঞ্চলিক সাংগঠনিক সভা অনুষ্ঠিত একদা এমনই বাদল শেষের ভোরে কুমিল্লা-৭(চান্দিনা) সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে ডা: প্রাণ গোপাল দত্তকে  বিজয়ী ঘোষণা  নাঙ্গলকোটে নারী ভোটারের ব্যাপক উপস্থিতি, ইভিএম নিয়ে বিড়ম্বনা মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ফেনীতে অবৈধভাবে সিএনজি গ্যাস সরবরাহের দায়ে ১৭ জন গ্রেফতার মৃত্যুর ৯ মাস পর কবর থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার হোমনায় বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ মুরাদনগরে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টায় একজন আটক এমপি বাহারের বড় ভাইয়ের ইন্তেকাল গার্মেন্টস কর্মীকে অপহরণ ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ছয় জন আটক মুরাদনগরে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা: সাংসদের পরিদর্শন
মেঘমন্দ্র শ্লোক

মেঘমন্দ্র শ্লোক

বাসন্তি সাহা।। রাতের অন্ধকার আস্তে আস্তে ধূসর হয়ে যেতো। পুরনো দালানের ঘুলঘুলির ফাঁকা দিয়ে আলো এসে পড়তো বিছানার পাশে। আর শুয়ে থাকা নয়। উঠে যেতাম । ভোর হয়ে গেছে। উঠোনে শিউলি, পদ্ম আর বেলি ফুলের গন্ধ। শুকনো পাতায় শিশিরের টুপটুপ শব্দ। গায়ে ঠান্ডা হাওয়ার ঝাপটা। তারপর বহুকাল কেটে গেছে সুখে-দুঃখে, প্রেমে-অপ্রেমে। এখন সকাল হলে জলের ঘুর্ণির মতো ঘুরতে থাকি! তারপরও ঘুরে ফিরে সেইসব ছায়ারা ভিড় করে চারপাশে। কাজের ফাঁকে ফাঁকে সময় করে কথা বলে যাই তাদের সাথে।

প্যানডেমিক, লকডাউন জীবনটাকে বদলে দিয়েছে অনেকটাই। নতুন করে চিনিয়েছে নিজেকেও। নিজের মধ্যে ডুব দেয়া, এক টুকরো ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে থেকে কোটি কোটি ছায়াপথ পেরিয়ে মেঘের কাছে যাওয়া। দুলে ওঠে কাঠের নড়বড়ে সাঁকো। তাও একপ্রান্ত প্রাণপণে ধরে থাকি। ‘স্রোতে যায় ভেসে, ডোবে বুঝি শেষে, করে দিবানিশি টলোমল’। সেই তো আমি।

 

এখন বর্ষাাকাল। `মেঘমন্দ্র শ্লোক. বিশ্বের বিরহী যত সকলের শোক. রাখিয়াছে আপন আঁধার স্তরে স্তরে. সঘনসংগীতমাঝে পুঞ্জীভূত করে’। সন্ধ্যায় কখনো উঁকি দেয় গোধুলির স্বর্ণরাগ। হা করে তাকিয়েও থাকি অস্তগামী সুর্যের দিকে। সন্ধ্যার সেই বিষণ্ণ মানুষটাও তো আমি।

যে জন দেয় না দেখা, যায় যে দেখে
ভালোবাসে আড়াল থেকে
আমার মন মজেছে সেই গভীরের
গোপন ভালোবাসায় (রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)

 

আমার কবিতারা পথ হারিয়েছে। একসময় কবিতায় রাতগুলো ভোরের জন্য তৈরি হতো। তারপর সারাদিন ধরে চলতো কবিতায় বসবাস। সময়টা কী একেবারেই হারিয়ে গেছে কোথাও? । অফিসের, সংসারের অগণিত কাজে ব্যস্ত থাকি। সকাল বেলা ছেলে-মেয়ের খাওয়া না হলে বসতে পারি না। চোখ রাখতে হয় মেয়ের অনলাইন ক্লাসের দিকেও। ক্লাস করছে নাকি, অন্যকিছূ দেখছে। তবু তার মধ্যেই মাঝে মাঝে মেঘ এসে মনটাকে অন্যরকম করে দিয়ে যায়। কখনও কেবল চুপ করে বসে থাকি । হয়তো কাউকে খুঁজি। ‘হারিয়ে গেছে মোর বাঁশি আজি কোন ‍সুরে ডাকি তোমারে’। সেও আমিই।

 

প্রত্যেকটা মানুষ তার নিজের আলাদা আলাদা সত্তাগুলো নিয়ে কেমন মিলে-মিশে জরিয়ে থাকে । কোথাও আলাদা হয়ে, আলাদা করে দাঁড়িয়ে থাকা যায় না। যদি এমন হতো কবিতায় বেঁচে থাকা মানুষটাকে আর মাছের পাতুরি রান্না করা মানুষটাকে আলাদা করা যেতো! কেমন হতো! নিজেও মাঝে মাঝে নিজের এক একটা সত্তাকে গলা চেপে ধরি। কিন্তু একেবারে মেরে ফেলতে পারি না। সময়টা স্তব্ধ হয়ে যায়। আবার সব গুছিয়ে নেই। আষাঢ়ের জলভরা মেঘের দিকে তাকিয়ে ভাবি ‘ হাওয়ায় হাওয়ায় আসুক তারা ফিরে। বৃষ্টি ধারে’।

 

কোনো একটি গুমোট বিকেলে হঠাৎ হঠাৎ মনে হয় এই বুঝি চিনেছি তাকে। তারপর আবার ‘সেই ছায়া ঘনাইছে বনে বনে’ আধা আলো অন্ধকার, কিছুই বোঝা যায় না। কতকিছু ভাবি, কত কথা জমে থাকে, বলেও ফেলি কিছু। কিন্তু যতটাই বলি ততটাই লুকিয়ে রাখি । ‘তুমি কী তেমনেই বড়ো’’? আমি এইখানে হাড়গোড় ভাঙা সংকোচে জড়সড়’।

 

এখন অন্ধকার ক্রমশ চোখ সয়ে আসছে। আশেপাশের দেওয়ালজুড়ে কাদের যেন অবয়ব ফুটে উঠছে। ভীষণ ভয় করছে আমার। কীসের ভয়! ক্রমশঃ প্রান্তিক হয়ে যাওয়ার ভয়? নাকি যত বড় রাজধানী হোক তত বিখ্যাত নয় হৃদয়পুর। ছেলেকে কোথায় রেখে যাবো? মেয়েকে কোথায় রাখবো? সারাক্ষণই ভাবি কিন্তু নিজেকে কোথায় রাখবো??

কিছু অনুরাগ বৃষ্টি হোক,
কিছু কষ্ট হোক না নোনা জল!
কিছু ভালবাসা বর্ষা হয়ে
ভোলাক অভিমান।। (সুমনা গুপ্তা)`

 

ছবি তুলেছেন খোদেজা রুমী। নাম ও ভাব সবই তাঁর কাছ থেকে ধার করা।

লেখকঃ কর্মসূচী পরিচালক, দর্পণ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web