রবিবার, ২০ Jun ২০২১, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কুমিল্লায় অস্ত্রসহ শীর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল গ্রেফতার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে কুমিল্লায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান কুমিল্লায় গুলিভর্তি রিভলবারসহ ৯ মামলার আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব কুমিল্লায় দ্বিতীয় ধাপে ঘর পাবেন ১,২৯১টি ভূমিহীন পরিবার কুমিল্লায় সড়ক দুঘর্টনায় ৩ জনের মৃত্যু পিতার সাথে অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা হোমনায় জেলেদের মাঝে সেলাই মেশিন ও বেড় জাল বিতরণ কুমিল্লায় নকল বিটুমিন তৈরি কারখানায় অভিযান, মালিকসহ আটক ২ কুমিল্লায় সিনোভ্যাক ভ্যাকসিন পৌঁছেছে চৌদ্দগ্রামে ইয়াবাসহ নারী আটক এক বছর পরীক্ষা না দিলে বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে না-দীপু মনি পরিবহন থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে র‍্যাবের হাতে আটক ২ তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত সচিব কুমিল্লায় ব্যবসায়ীকে হত্যা চেষ্টার পর লুঙ্গি ড্যান্স করা মেহেদী গ্রেফতার মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ
বুড়িচংয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৪

বুড়িচংয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৪

রুবেল মজুমদার।। সামান্য তর্ক-বির্তকের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ জন আহত হয়েছে।  ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা মো: সুরুজ মিয়ার(৬০) বাড়িতে।

 

সুরুজ মিয়া জানান, ২ জুন তার ছেলে সৌরভের সাথে একই ইউনিয়নের জগৎপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন ভূইয়ার সাথে সামান্য বিষয়ে তর্ক বির্তক হয়। পরে বাজারের লোকেরা ঝামেলা মিটিয়ে দিলে সৌরভ বাড়ি চলে আসে। আমরা ভেবেছিলাম ঝামেলা শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু তারা  এই সামান্য ঘটনাটিকে বিবাদের পর্যায়ে নিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে আমার পরিবারের সদস্যগনসহ দুপুরের খাবার শেষে বিশ্রামের জন্য নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করছিলাম। ঠিক সেই মূহুর্তে আমার বাড়িতে ১৫ থেকে ২০ জন সন্ত্রাসী হামলা করে। হামলায় আমার চার ছেলেসহ পুরো পরিবার হাসপাতালে। ওরা প্রভাব খাটিয়ে আমাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি হতে দেয়নি। পরে আমি কুমিল্লার মীম হাসপাতালে তাদের নিয়ে যাই। তারা আমার ঘরবাড়িও কুপিয়েছে। তারা আমার ১২ বছরের নাতী নাতনীদের গায়েও হাত তুলেছে।

 

তিনি অভিযোগ করে বলেন, হামলার নেতৃত্বে ছিলেন বুড়িচং সদর ইউনিয়নের রফিকুল ইসলাম ভূইয়া, বিআরডিবি চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম ভূইয়া, ফার্মেসিস্ট ও রাজনীতিবীদ ইমতিয়াজ আহমেদ ইমন ভূইয়া এবং ব্যবসায়ী আইয়ুব আলী মেম্বার।

 

এ বিষয়ে বুড়িচং সদর ইউপির চেয়ারম্যান মো: শাহ আলম বলেন, আগে থেকেই এই এলাকায় বংশগত প্রথা চালু রয়েছে। শুনেছি দুই বন্ধুর মধ্যে কিছু একটি বিষয় নিয়ে ঝামেলা হয়েছে। পরে এটা বংশগত কারণে বড় আকার ধারণ করেছে।

 

এই ঘটনার সাথে অভিযুক্তদের মতামত জানতে এ প্রতিনিধি একাধিকবার তাদের মোবাইলে ফোন দিলেও তারা রিসিভ করেনি।

 

বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ঘটনার বিষয়ে আমি শুনেছি। এখনও কোন অভিযোগ আসেনি অভিযোগ আসলে অবশ্যই আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web