বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি নিরাময় ও ঝরে পড়া রোধকল্পে মুরাদনগরে এমপি’র মতবিনিময় সভা নবজাতক কন্যাকে আর কোলে নেয়া হলো না আতিক মুন্সীর! মুরাদনগরে মানসিক প্রতিবন্ধী নাছির হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার কুমিল্লায় বাংলাদেশ কৃষকলীগের আঞ্চলিক সাংগঠনিক সভা অনুষ্ঠিত একদা এমনই বাদল শেষের ভোরে কুমিল্লা-৭(চান্দিনা) সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে ডা: প্রাণ গোপাল দত্তকে  বিজয়ী ঘোষণা  নাঙ্গলকোটে নারী ভোটারের ব্যাপক উপস্থিতি, ইভিএম নিয়ে বিড়ম্বনা মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ফেনীতে অবৈধভাবে সিএনজি গ্যাস সরবরাহের দায়ে ১৭ জন গ্রেফতার মৃত্যুর ৯ মাস পর কবর থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার হোমনায় বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ মুরাদনগরে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টায় একজন আটক এমপি বাহারের বড় ভাইয়ের ইন্তেকাল গার্মেন্টস কর্মীকে অপহরণ ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ছয় জন আটক মুরাদনগরে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা: সাংসদের পরিদর্শন
প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে কুমিল্লার শিক্ষাঙ্গনে

প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে কুমিল্লার শিক্ষাঙ্গনে

রুবেল মজুমদার ।। দীর্ঘ ১৮ মাস পর শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত কুমিল্লা শিক্ষাঙ্গনগুলো। সেখানে আজ যেনো উৎসবের আমেজ। কোথাও কোথাও শিক্ষার্থীদের বরণ করা হচ্ছে ঢাকঢোল পিটিয়ে। আবার কোথাও শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরানো হচ্ছে রীতিমত ফুল উপহার দিয়ে।এভাবেই ৫৪৩ দিন পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলাকে স্বাগত জানাচ্ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

 

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্কপরা, হাতধোয়াসহ সামাজিক দূরত্ব মেনে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করার বিষয়টি মনিটরিং করছে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন৷চলমান করোনা মহামারির কারণে দীর্ঘ অনাকাঙ্ক্ষিত বিরতির অবসান ঘটেছে আজ। অপেক্ষার পালাশেষে প্রাণহীন শিক্ষাঙ্গনে আবার প্রাণের ছোঁয়া লেগেছে। নতুন করে রং করা হয়েছে অনেকগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন। নতুন খাতা-কলম, বই, পাশাপাশি নতুন স্কুল ও কলেজ ড্রেস পড়ে আসছেন অধিকাংশ শিক্ষার্থী। স্বাস্থ্যবিধি মানাতে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য হাতধোয়ার সঠিক নিয়ম, মাস্ক পরিধানের নিয়ম, হাঁচি-কাশির শিষ্টাচারও টাঙানো হয়েছে স্কুল-কলেজগুলোতে। যে সব শিক্ষার্থী ভূলবশত: মাস্ক পড়ে আসেনি, স্কুল-কলেজের পক্ষ থেকে তাদের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

 

সকালে কুমিল্লা কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজে, কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড স্কুল এন্ড কলেজ, ইশ্বর পাঠশালা পরিদর্শন করে শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানান কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ কামরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, জেলশিক্ষা অফিসার মো: আব্দুল মজিদ, আদর্শ সদর উপজেলার ইউএনও জাকিয়া আফরিনসহ প্রমুখ। দীর্ঘদিন পর সশরীরে ক্লাসে বসার আনন্দ দেখা যায় শিক্ষার্থীদের চোখে-মুখে। কর্তৃপক্ষও সমউচ্ছ্বাসে তাদের বরণ নিয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে একে একে ঢোকানো হয়েছে শ্রেণিকক্ষে। এছাড়াও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বাইরে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে দেড় বছর পর স্কুল খোলাতে সহপাঠীদের সঙ্গে আগের সেই হইহুল্লোড় নেই। সামনের বেঞ্চে বসা নিয়ে নেই হুড়োহুড়িও। শিক্ষকদের নির্দেশনা মেনে শিক্ষার্থীরা দূরত্ব বজায় রেখে স্কুলে প্রবেশ করছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলায় শিক্ষক ও অভিভাবকদের মাঝেও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে।

 

তবে করোনার সংক্রমণ ফের বাড়ার শঙ্কায় উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন একাধিক অভিভাবক।

কুমিল্লার নগরীর নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুমিল্লা কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজে, কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড স্কুল এন্ড কলেজ, ইশ্বর পাঠশালা, কুমিল্লা জেলা স্কুল, বেপজা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিল্লা মডার্ন স্কুল, কুমিল্লা ইবনে তাইমিয়া স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিল্লা হাই স্কুল, শাকতলা উচ্চ বিদ্যালয়, গোবিন্দপুর সরকারি বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন মাদরাসা, কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলো শিক্ষার্থীদের কোলাহলে মুখরিত।

 

কুমিল্লা জেলা স্কুলের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ফাহিম মজুমদার বলেন, স্কুল বন্ধ থাকায় আমরা অনলাইনে ক্লাস করেছি। কিন্তু সেটি তেমন প্রাণবন্ত ছিল না। বিদ্যালয়ে এসে প্রিয় শিক্ষক ও বন্ধুদের সঙ্গে ক্লাস করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এতদিন পড়াশোনা বাইরে ছিলাম, এখন থেকে পুরাতন রুটিন আবার শুরু করছি। সব মিলে অনেল ভালো লাগছে।

 

নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফৌরদৌস বলেন, আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করছি। সত্যি আমার কাছে অনেক ভালো লাগছে। এতদিন বাসায় বন্দী ছিলাম, শুধু অপেক্ষা করতাম কবে স্কুল খুলবে? প্রিয় শিক্ষক ও সহপাঠীদের সাথে দেখা হলো আজ। বন্ধুদের নিয়ে ক্লাস করায় খুব আনন্দ লাগছে। আশা করি আমরা এভাবে পড়ালেখা করতে পারবো।

 

কুমিল্লা জেলা স্কুলের প্রধান শিক্ষকা রাশেদা আক্তার বলেন, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়মিত খোঁজ-খবর নিয়ে যাচ্ছে। সরকারি নির্দেশনা মতে, আজ থেকে পাঠদান শুরু। আমরা চারটি শিফ্টে ভাগ করে শিক্ষার্থীদের পাঠদান দিচ্ছি। স্বাস্থ্যবিধি বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি। স্কুলের নিজ উদ্যোগে ২০০০ মাস্কের ব্যবস্থা করেছি। শিক্ষার্থীরাও ক্লাস করতে পেরে খুবই খুশি।

 

কুমিল্লার জেলা শিক্ষা অফিসার মো: আব্দুল মজিদ বলেন, ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে সকল প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আজ আমরা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেছি। শিক্ষার্থীদের শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস পরিচালনা করার জন্য আমরা সার্বিক চেষ্টা করছি। আমাদের বিশেষ টিম সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের খোঁজ-খবর রাখছে।

 

উল্লেখ্য; কুমিল্লা জেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ,১০৬ টি, মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের মোট ৬০৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৫৭৯, মাদ্রাসা ৩৭৯, উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ ৯৯টি এবং স্কুল এন্ড কলেজ ৩৬ টি

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web