শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শার্শায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফের ইন্তেকাল, রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন  কুমিল্লা ইপিজেডের নাসা কোম্পানীর ছাদ ধ্বসে পড়ে এক শ্রমিক নিহত কুমিল্লায় মাহবুবের মাছের আঁশ রপ্তানি হচ্ছে চীন ও জাপানে চৌদ্দগ্রামের চান্দশ্রী থেকে ৬০০ বোতল ফেন্সিডিলসহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার শার্শা সীমান্তে ফেনসিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক শার্শার ডিহিতে দুই মেম্বার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ২২ জন আহত  কুমিল্লায় প্রাইভেটকারের চাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু দেবিদ্বারে শিশু ফাহিমা হত্যাকান্ডের দায়ে পিতাসহ ৫ জন গ্রেফতার কুমিল্লায় র‌্যাবের অভিযানে মাদকসহ চারজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় চির বিদায় নিলেন আফজল খান নাঙ্গলকোটে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. কাজী শাহজাহান এর বিদায় সংবর্ধনা কুমিল্লায় এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা পাবে ফাইজার এর ৪১ হাজার টিকা রেলের প্রেসিডেন্ট সেলুনে একদিন গ্রন্থ সমালোচনা: মোবাশ্বের আলীর সাহিত্য চেতনা গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টিতে তীব্র শীতের আভাস
করোনাকালঃ এই সময় জ্বর হলে কী করবেন?

করোনাকালঃ এই সময় জ্বর হলে কী করবেন?

-ডাঃ মোঃ মুজিবুর রহমান।।

একটু গা গরম হলেই এখন টেনশন। সঙ্গে কাশি ও গলাব্যথা থাকলে তো কথাই নেই। কোভিড আতংকে মানুষ ভুলেই গেছেন সাধারণ ইনফ্লুয়েন্জার কথা। ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে যে নিয়ম করে আসে প্রতিবছর। এবছরও সেই নিয়মের ব্যতিক্রম হয়নি এবং তা বাড়ছে ক্রমাগত।সাধারণ ফ্লুয়ের সঙ্গে এবছর যোগ হয়েছে বাড়তি ভয়। কিন্তু সত্যিই কি ভয় পাওয়ার কিছু আছে?

 

ইনফ্লুয়েন্জা ভাইরাসের সংক্রমণ হলে হালকা থেকে মাঝারি জ্বরের সঙ্গে গা ম্যাজম্যাজ একটু সর্দি ভাব কখনও নাক দিয়ে পানি পরা বা নাক বন্ধের মতো উপসর্গ থাকে ।কাশিও হতে পারে তবে তা এমন যাতে মনে হয় কফ বের করে দেয়ার জন্য কাশছে, কিন্তু কফ বেরোচ্ছে না । এ অবস্থায় চিন্তার কিছু নেই। ঘরে বিশ্রামে থাকুন ।গরম পানির ভাপ নিন। হালকা খাবার ও পর্যাপ্ত তরল খাবার খান। জ্বর বাড়লে প্যারাসিটামল টেবলেট খান। মাল্টিভিটামিন টেবলেটও খেতে পারেন। মাস্ক পরে বাড়ির অন্যদের থেকে দূরে থাকুন, ইনফ্লুয়েন্জার কারণে শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় ।ফলে পরিবারের অন্য কারও সূত্রে করোনা ঘরে এলে সবার প্রথমে তা রোগীর শরীরে সংক্রমণ ঘটাতে পারে ।

 

ইনফ্লুয়েন্জা জ্বর ও কষ্ট সাধারণত ২–৩ দিন থাকতে পারে। তারপর কমে যায়। বা কমতে শুরু করে। কিন্তু তা না হয়ে, ৪–৫ দিন পরও জ্বর থাকলে ও জ্বর বাড়তে শুরু করলে রোগী দূর্বল হয়ে পড়েন। কিংবা ডায়রিয়া সর্দি কমে গিয়ে শ্বাসকষ্ট বা কাশির মাত্রা যদি বাড়তে শুরু করে তাহলে সঙ্গে সঙ্গে কোভিডের পরীক্ষা করা উচিত ।

 

খুব বেশি জ্বর হবে এমন কোনও কথাও নেই ।হালকা গরম থেকেও শরীরে বাঁধতে পারে ভাইরাল ফ্লু। জ্বরের সঙ্গে মাথাব্যথা দূর্বল লাগা খাদ্যে অরুচী এগুলো অসুস্থতার লক্ষণ। জ্বরের সঙ্গে গা হাত ব্যথা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই থাকে। এলার্জির প্রবনতা থাকলে নাক দিয়ে পানি ঝরা, সর্দি কাশি দেখা দিতে পারে।

 

তাহলে কি জ্বর হলেই পরীক্ষা করে নেয়া ভালো?

কারণ পরে যদি ধরা পড়ে যে কোভিড ছিল, ততদিনে তো অনেকের মধ্যে রোগ ছড়িয়ে যাবে ।
একবার পরীক্ষা হলেই তা নিয়ে নিশ্চয়তার কিছু নেই। তাই জ্বর একদিন দু’দিন থাকলেই তা নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। তা’ছাড়া এমনিতেও কোমর্বিডিটি না থাকলে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে
কোভিড এতো হালকাভাবে থাকে প্যারাসিটামল সহ কিছু সাধারণ ওষুধ ও একটু বিশ্রামে থাকলেই সব ঠিক হয়ে যায়।

 

বর্তমানে পরিস্থিতি যা দাড়িয়েছে, তাতে সাবধান না হলে এমনিতেই সবার হবে। কাজেই সতর্ক থাকুন। বাড়িতে কারও জ্বর হলে সে ইনফ্লুয়েন্জা হোক কি কোভিড তাকে সবার থেকে আলাদা করে দিন। রোগী ও পরিবারের সবাই তিন স্তর বিশিষ্ট কাপড়ের মাস্ক পরুন। বার বার হাত ধুয়ে নিন। ইনফ্লুয়েন্জাও যথেষ্ট ছোঁয়াচে ।

 

একটি কথা সব সময় মনে রাখা দরকার যে কোনও একটি সংক্রমণ কিন্তু অন্য সংক্রমণকে ডেকে আনতে পারে। কাজেই সাবধানতার কোনও বিকল্প নেই। সুতরাং জ্বর হলে টেনশন করবেন না।তাতে শরীর আরও দূর্বল হবে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দু’তিন দিনে সমস্যা কমে যাবে। কাজেই সাবধানে থাকুন এবং প্রয়োজনবোধে টেলিমেডিসিন সেবা গ্রহণ করুন অথবা নিকটস্থ যে কোনও রেজিষ্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ নিন ।

 

মনে রাখবেন করোনার এই নিদানকালে সবচেয়ে বড় ভুক্তভোগী হবেন গর্ভবতী মা, নবজাতক শিশু এবং বয়স্ক জনগোষ্ঠী ।

লেখকঃ পরিচালক, কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web