বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি নিরাময় ও ঝরে পড়া রোধকল্পে মুরাদনগরে এমপি’র মতবিনিময় সভা নবজাতক কন্যাকে আর কোলে নেয়া হলো না আতিক মুন্সীর! মুরাদনগরে মানসিক প্রতিবন্ধী নাছির হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার কুমিল্লায় বাংলাদেশ কৃষকলীগের আঞ্চলিক সাংগঠনিক সভা অনুষ্ঠিত একদা এমনই বাদল শেষের ভোরে কুমিল্লা-৭(চান্দিনা) সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে ডা: প্রাণ গোপাল দত্তকে  বিজয়ী ঘোষণা  নাঙ্গলকোটে নারী ভোটারের ব্যাপক উপস্থিতি, ইভিএম নিয়ে বিড়ম্বনা মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ফেনীতে অবৈধভাবে সিএনজি গ্যাস সরবরাহের দায়ে ১৭ জন গ্রেফতার মৃত্যুর ৯ মাস পর কবর থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার হোমনায় বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ মুরাদনগরে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টায় একজন আটক এমপি বাহারের বড় ভাইয়ের ইন্তেকাল গার্মেন্টস কর্মীকে অপহরণ ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ছয় জন আটক মুরাদনগরে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা: সাংসদের পরিদর্শন
এই দাহকাল সহজে কাটবে না!

এই দাহকাল সহজে কাটবে না!

-বাসন্তি সাহা।।

মাত্র তিনদিনের ব্যবধানে আমরা মিতা হক ও কবরীকে হারিয়েছি। দুজনকে খুব কাছ থেকে চিনতাম তাও না। মিতা হককে দেখেছি দূর থেকে ছায়ানটে আর কবরীকে দেখেছি টেলিভিশনের পর্দায়।

 

আমার প্রথম দেখা সিনেমা ‘‘মমতা’’র নায়িকা ছিলেন কবরী। তখন বিটিভিতে সিনেমাটা দেখানো হয়েছিল। তারপর আরও কত সিনেমা। এখনও মাঝে মাঝে ‘তুমি যে আমার কবিতা’ বা ‘মনতো ছোঁয়া যাবে না অথবা ‘সে যে কেনো এলো না’ সেই অভিমান দেখি মাঝে মাঝে। তাঁর এক্সপ্রেশন, সাজের পরিমিতিবোধ, হাসির সরলতা পরের নায়িকারা আর কেউ পেলো না কেন বুঝতে পারি না! সেই সময়ের গান, অভিনয়, সুরের এতবড় উত্তরাধিকার পাওয়ার পরও আমরা এমন ভিখারী হয়ে গেলাম কেন কে জানে!

আর মিতা হক। তাঁর গান আমি শুনি যখন আমার কাঁদতে ইচ্ছে করে। তাঁর গলায় তাঁর অনুভবে আমার বেদনাগুলো যেনো ধরা দিয়েছে। মিতা হক, দেবব্রত বিশ্বাসের গানের মধ্যে দিয়ে রবীন্দ্রনাথ আমার আশ্রয় হয়ে আছেন। যখনই কোনো বেদনা আমাকে বিদীর্ণ করে আমি ছুটে যাই রবীন্দ্র নাথের কাছে মিতা হক, দেবব্রত বিশ্বাসের হাত ধরে।

 

গত দু’দিন তাদের চলে যাবার সংবাদগুলো ফলো করছিলাম। কেবল প্রথম আলো’তে তাদের চলে যাবার সংবাদের নিচের কমেন্টগুলো পড়ে তাদের চলে যাবার চেয়ে বেশি কষ্ট পেয়েছি। কতরকম মন্তব্য বিম্মিত, হতবাক আর স্তব্দ করে দিয়েছে আমাকে। মনে হচ্ছে, আমরা কোথায় যাচিছ কে তা জানে—-

সেখানে এই দুজন শিল্পী ব্যক্তি মানুষ, তাদের অবদানের বাইরে –তাদের বিশ্বাস নিয়ে যে পরিমাণ নেতিবাচক আলোচনা চোখে পড়েছে তার বেদনা এই মৃত্যুর চেয়ে কম ভয়াবহ নয়। এমন একটা সময়, যে কোনো সময় যে কেউ চলে যেতে পারি! এই সময়ে এসেও আমরা এতোটা হিংসা লালন করি নিজের মধ্যে!

 

তাহলে মহামারী থেকে আমরা কী শিখলাম! অতর্কিতে আক্রান্ত হওয়ার ভয়, সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ভয়, প্রিয়জনকে হারিয়ে ফেলার ভয় কিছুই পরিবর্তন করতে পারলো না আমাদের মনকে!

 

এই মহামারীর বিষাদস্মৃতি হয়তো বিদায় নেবে কিন্তু মানবিক মানুষ হারিয়ে ফেলার ক্ষতি তার চেয়ে ভয়াবহ হবে। ভাইরাসের চেয়ে তা দ্রুত আগুণের মতো ছড়াচ্ছে। রিক্ত হয়েও আমরা কিছু অর্জন করতে শিখলাম না। এই দাহকাল সহজে কাটবে না।

লেখকঃ কর্মসূচী পরিচালক, দর্পণ, কুমিল্লা।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© কুমিল্লা দর্পণ। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web